ঢাকা মঙ্গলবার, ২১শে মে ২০২৪, ৮ই জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১


বার্সাকে কাঁদিয়ে সেমিফাইনালে পিএসজি


১৭ এপ্রিল ২০২৪ ১১:৩৫

সংগৃহিত

পিএসজির মাঠে প্রথম লেগে জয়ের আত্মবিশ্বাস নিয়ে ফিরতি লেগে খেলতে নেমেছিল বার্সেলোনা। শুরুতে তারা এগিয়েও গিয়েছিল। তবে প্রথমার্ধে ১০ জনের দলে পরিণত হয় কাতালানরা। এরই সুযোগ কাজে লাগিয়ে প্রত্যাবর্তনের দারুণ গল্প লিখে চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে জায়গা করে নিল লুইস এনরিকের শিষ্যরা।

মঙ্গলবার রাতে আসরের কোয়ার্টার-ফাইনালের দ্বিতীয় লেগে বার্সার মাঠে পিএসজি জয় পায় ৪-১ গোলে। যেখানে দুই লেগ মিলিয়ে একটা পর্যায়ে ৪-২ গোলে পিছিয়ে পড়া প্যারিসের দলটি শেষ পর্যন্ত ৬-৪ গোলের অগ্রগামিতায় পৌঁছে গেল শেষ চারে।

এদিন ফিনিয়া শুরুতে বার্সেলোনাকে এগিয়ে নেওয়ার পর ম্যাচের আধা ঘন্টার আগেই লাল কার্ড দেখেন ডিফেন্ডার রোনাল্দ আরাউহো। প্রথমার্ধেই পিএসজির হয়ে ম্যাচে সমতা টানেন উসমান দেম্বেলে। দ্বিতীয়ার্ধে ভিতিনিয়া দলকে এগিয়ে নেওয়ার পর জোড়া গোল করেন কিলিয়ান এমবাপ্পে।

আরাউহোর পাশাপাশি বার্সেলোনা কোচ জাভি এবং তাদের সাপোর্ট স্টাফের আরও এক সদস্য লাল কার্ড দেখেন এই ম্যাচে। এর আগে প্রথম লেগে পিএসজির মাঠে ৩-২ গোলে জিতেছিল কাতালান দলটি।

খেলার দ্বাদশ মিনিটে প্রথম ভালো সুযোগেই এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। লামিনে ইয়ামাল ডান দিক দিয়ে প্রতিপক্ষের একজনের বাধা এড়িয়ে বক্সে ঢুকে কাট-ব্যাক করেন আর কাছ থেকে ভলিতে জাল খুঁজে নেন রাফিনিয়া। দুই লেগ মিলিয়ে তখন ৪-২ গোলে এগিয়ে লা লিগা চ্যাম্পিয়নরা।

কিন্তু ২৯তম মিনিটেই বার্সেলোনার লাল কার্ডের ধাক্কা। বক্সের বাইরে বিপজ্জনক জায়গায় পিএসজির বারকোলাকে ফাউল করে সরাসরি লাল কার্ড দেখেন আরাউহো।

পিএসজি প্রতিপক্ষে এক জন কম থাকার সুযোগে চাপ বাড়ায়। ৪০তম মিনিটে তাদের ম্যাচে ফেরান দেম্বেলে। বাঁ দিক থেকে বারকোলার বাড়ানো বলে দূরের পোস্টে ডান পায়ের শটে গোলটি করেন ফরাসি ফরোয়ার্ড। বিরতির আগে তার আরেকটি প্রচেষ্টা পোস্ট ঘেঁষে বেরিয়ে যায়।

বিরতির পর ৫৪তম মিনিটে আবার বার্সেলোনার জালে বল পাঠায় পিএসজি। বক্সের বাইরে থেকে জোরাল শটে গোলটি করেন ভিতিনিয়া। দুই লেগ মিলিয়ে তখন ৪-৪ সমতা।

এরপর রেফারির একটি সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়ে টাচলাইনে থাকা পানির বোতলে লাথি মারেন জাভি, কিছু একটা বলতে থাকেন রেফারিকে। বার্সেলোনা কোচকে লাল কার্ড দেখান রেফারি।

ম্যাচের ৬১তম মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে স্কোরলাইন ৩-১ করেন এমবাপ্পে। জোয়াও কানসেলো বক্সে দেম্বেলেকে ফাউল করায় পেনাল্টি দিয়েছিলেন রেফারি। দুই লেগ মিলিয়ে তখন ৫-৪ গোলে এগিয়ে যায় পিএসজি।

দুই মিনিট পর প্রতিপক্ষের চ্যালেঞ্জে বক্সে পড়ে যাওয়ার পর পেনাল্টির আবেদন করেন গিনদোয়ান, তবে রেফারির সাড়া মেলেনি, বরং রেফারির সঙ্গে তর্কে জড়িয়ে হলুদ কার্ড দেখেন জার্মান মিডফিল্ডার। একই সঙ্গে ডাগআউটে বার্সেলোনার এক সাপোর্ট স্টাফ দেখেন লাল কার্ড।

৮৯তম মিনিটে ডাবল সেভ করেন টের স্টেগেন। মার্কো আসেন্সিওর শট ঠেকানোর পর এমবাপের প্রচেষ্টাও রুখে দেন তিনি। তবে বল ক্লিয়ার করতে পারেননি বার্সেলোনার ডিফেন্ডাররা। কাছ থেকে শটে ম্যাচের শেষ গোল করেন এমবাপে।

সেমিফাইনালে পিএসজির প্রতিপক্ষ বরুশিয়া ডর্টমুন্ড। দুই লেগ মিলিয়ে আতলেতিকো মাদ্রিদকে ৫-৪ গোলে হারিয়ে শেষ চারের টিকেট পেয়েছে জার্মান দলটি।