ঢাকা শুক্রবার, ১০ই এপ্রিল ২০২০, ২৮শে চৈত্র ১৪২৬


খালেদা জিয়ার মুক্তি যেকোনো সময়: কাদের


২৫ মার্চ ২০২০ ১৪:২৭

আপডেট:
১০ এপ্রিল ২০২০ ০৬:২৬

আনুষ্ঠানিকতা শেষ হলেই বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, আশা করি বিএনপি করোনা মোকাবিলায় সর্বাত্মক সহযোগিতা করবে। 

বুধবার (২৫ মার্চ) সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন সেতুমন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে তিনি একথা বলেন।

সেতুমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়ার শাস্তি ৬ মাসের জন্য স্থগিত করে প্রধানমন্ত্রী প্রজ্ঞা, অভিজ্ঞতা এবং দূরদর্শী নেতৃত্বের পরিচয় দিয়ে নৈতিক ও মানবিকতার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। আশা করি, বিএনপি এ বিষয়টি ইতিবাচক দৃষ্টিকোণ থেকে দেখে আমাদের সবার অভিন্ন শত্রু করোনা মোকাবিলায় সরকারের সর্বাত্মাক ও সম্মিলিত  উদ্যোগের সহযোগী হবে।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার পরিবার স্বরাষ্ট্র ও আইন মন্ত্রণালয়ে আবেদন জানানোর পর সরকার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ১০ থেকে ১১ দিন আগে তারা আবেদন করেন। ইচ্ছে করলে তারা আরও আগেই আবেদন করতে পারতেন। খালেদা জিয়া যে কোনো মুহূর্তে ছাড়া পেতে পারেন। কিছু আনুষ্ঠানিকতার বিষয় রয়েছে। সেগুলো শেষ হলেই তিনি মুক্তি পাবেন।

কাদের বলেন, খালেদা জিয়ার বয়স ও অসুস্থতার বিষয় বিবেচনায় নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সিআরপিসি ৪০১ এর ১ ধারা বলে তার সাজা ৬ মাসের জন্য স্থগিত করেছেন। বৈশ্বিক ও ভায়াবহ এ সংকটকালে বিএনপি সব নেতিবাচক রাজনীতি পরিহার করে মানুষকে বাঁচানোর অভিন্ন পথ বেছে নেওয়ার জন্য আহবান জানাচ্ছি।

এতদিন সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে খালেদা জিয়ার মুক্তি আদালতের বিষয়-এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সে কথা সত্যই বলেছে। কিন্তু নিয়মটাতো মানতে হবে। তারা ১০ থেকে ১১ দিন আগে আবেদন করেছেন। এখানে ফৌজদারি কার্যবিধির বিষয় তারাও জানেন। এখানে নিয়মানুযায়ী তাকে আজকে মুক্তি দেওয়া হচ্ছে। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তারা আবেদন করেছেন। ফৌজদারি কার্যবিধি ৪০১ ধারা উপধারা ১ এর অনুযায়ী বিবেচনা করা হয়েছে। তার শাস্তি আংশিক মওকুফ করে ৬ মাসের জন্য মুক্তি দেওয়া হচ্ছে।

তারা আরও আগে আবেদন করলে আরও আগে মুক্তি পেতেন ও আজ মুক্তি পাবেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে কাদের বলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তি যেকোনো সময়। আনুষ্ঠানিকতার কিছু বিষয় আছে। সে বিষয়টি সম্পন্ন হলে আমার মনে হয় তার মুক্তি পেতে আর কোনো অসুবিধা নেই। যেখানে প্রধানমন্ত্রী সরকার প্রধান হিসেবে মুক্তি দিয়েছেন। কাজেই এ ব্যাপারে গড়িমসির কোনো বিষয় নেই। আনুষ্ঠানিকতা পূরণ হলেই মুক্তি পাবেন।

যে প্রক্রিয়ায মুক্তি পেলেন সেটা কি আরও আগে সম্ভব ছিল না জানতে চাইলে তিনি বলেন, আরও আগে কি আবেদন সম্ভব ছিলো না। তারাতো আরও আগেই আবেদন করতে পারতেন। এখন আমাদের অভিন্ন শত্রু হচ্ছে করোনা। এ করোনা মোকাবিলায় বিএনপিও সরকারের সম্মেলিত উদ্যোগের সহযোগি হবে এটাই আমরা আশা করি।


নতুনসময়/আনু