ঢাকা রবিবার, ২৬শে মে ২০১৯, ১২ই জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬


ছেলের চোখ উপড়ে ফেললো বাবা-মা!


১৫ মে ২০১৯ ২১:২৪

আপডেট:
২৬ মে ২০১৯ ০৪:০১

ছেলের চোখ উপড়ে ফেলেছে বাবা-মা। পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলায় সদর ইউনিয়নের চর কারফারমা গ্রামে সোমবার রাতে এই ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনার সঙ্গে বাবা জালাল হাওরাদার. মা আয়ফুল জান বিবি ও মামা হারুন হাওলাদারের জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে এলাকাবাসীর।

মঙ্গলবার স্থানীয় সংবাদকর্মীরা ঘটনাস্থলে গেলেও ভিকটিম ও অভিযুক্ত কাউকে খুঁজে পাওয়া যায়নি।

এদিকে বেল্লালের মা আয়ফুল জান বিবি বোয়ালিয়া গ্রামের সাবেক মেম্বার ইদ্রিস মিয়ার কাছে উদ্ধত কন্ঠে দাবি করেন, নিজের ছেলের চোখ নিজেরা উঠিয়েছি। তিনি আরও বলেন, ছেলে খারাপ হলে নিজেদেরই ব্যবস্থা নিতে হয়।

সরেজমিন এলাকায় গিয়ে জানা গেছে, পক্ষিয়া গ্রামের হারুন হাওলাদারের ছেলে বেল্লালকে তার মামা হারুন হাওলাদার চর কারফারমা গ্রামে মাংস রুটি পিঠা খাওয়ার দাওয়াত দেয়। বেল্লাল সোমবার রাতেই মামা বাড়িতে গিয়ে উপস্থিত হয়। আগে থেকেই ওই বাড়িতে উপস্থিত ছিলেন বেল্লালের বাবা-মা। বাবা-মায়ের সঙ্গে ছেলে বেল্লালের দুর্বিনীত আচরণ, অনৈতিক কর্মকাণ্ড, মাদকাসক্তি ও পারিবারিক কলহের কারণে ক্ষিপ্ত ছিল তারা।

এলাকার রাজ্জাক মিয়া জানান, বেল্লালের স্ত্রী খাদিজা বেগমের সঙ্গে ছোট ভাই আলী হাওলাদারের পরকীয়া সম্পর্ক রয়েছে। এ ধরনের অভিযোগ ওঠলে খাদিজা আত্মহত্যা করেন। খাদিজা মারা যাওয়ায় তাদের ছেলে ও মেয়ে সানজিদা (৭), রেজাউলের (৫) আশ্রয় মিলে নানা বাড়ি আমখোলায়। এ ঘটনার পর থেকে বেল্লাল আরও বেপরোয়া হয়ে ওঠে। এলাকায় নানা অনৈতিক কর্মকাণ্ড শুরু করে। এতে বাবা-মায়ের সামাজিক ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়।

এ ব্যপারে গলাচিপা থানার ওসি আখতার মোর্শেদ জানান, বিষয়টি আমরা লোকমুখে শুনেছি। তবে এ ব্যাপারে কেউ কোনো অভিযোগ করেনি।

তিনি আরও জানান, বেল্লালের বিরুদ্ধে পটুয়াখালী পুলিশ সুপার বরাবরে তার মা আয়ফুল জান বিবি নানা অভিযোগ করেছেন যা গলাচিপা থানা পুলিশে তদন্তাধীন রয়েছে।


নতুনসময়/এনএইচ