ঢাকা শুক্রবার, ১০ই এপ্রিল ২০২০, ২৭শে চৈত্র ১৪২৬


পুলিশ সদস্যকে মারধরের অভিযোগে তিন কলেজছাত্র আটক


২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০২:০৪

আপডেট:
১০ এপ্রিল ২০২০ ০৫:৪৫

পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিএসবি) এক সদস্যকে মারধরের অভিযোগে যশোর এমএম কলেজের তিন ছাত্রকে আটক করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে এমএম কলেজ ক্যাম্পাসে ওই ডিএসবি সদস্যকে মারধর করা হয়। এরপর অভিযান চালিয়ে ওই তিন শিক্ষার্থীকে আটক করে।

কলেজ ক্যাম্পাস সূত্রে জানা যায়, দুপুরে ছাত্রলীগের এক কর্মী দর্শন বিভাগের এক ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করে। এ ঘটনায় কয়েক শিক্ষার্থী ছাত্রলীগের ওই কর্মীকে মারধর করে। বিষয়টি জানতে সেখানে পৌঁছান ডিএসবির ওই সদস্য। সেখানে উপস্থিত ছাত্রলীগের এক কর্মীর কাছে আগ্নেয়াস্ত্র ছিল। তিনি ওই কর্মীকে কোমরে কি জানতে চাইলে সে দৌড় দেয়। তাকে ধাওয়া করলে সে দৌঁড়ে আসাদ হলে গিয়ে আশ্রয় নেয়। এরপর তার সঙ্গে ছাত্রলীগের ২০-২৫ কর্মী ডিএসবি সদস্যের সঙ্গে খারাপ আচরণ ও তাকে মারধর করে। খবর পেয়ে বিপুল সংখ্যক পুলিশ কলেজের চারপাশে অবস্থান নেয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জেলা পুলিশের মুখপাত্র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলাম জানান, ডিএসবি সদস্যকে মারধরের খবর পেয়ে পুলিশের কয়েকটি টিম এমএম কলেজ ক্যাম্পাসে অভিযান চালায়। ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে তিনজনকে আটক করা হয়েছে।

এছাড়া মারপিটের সঙ্গে জড়িতদের নাম-ঠিকানা সনাক্ত করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা হবে বলে তিনি জানিয়েছেন। তবে আটককৃতদের নাম ঠিকানা প্রকাশ করতে রাজি হয়নি পুলিশ।

এমএম কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ প্রফেসর শেখ আবুল কওসার জানন, দুপুরে পুলিশের কয়েকজন কর্মকর্তা তার সঙ্গে দেখা করেন। এ সময় তারা জানান, ক্যাম্পাসে অস্ত্রবাজ সন্ত্রাসীদের ধরতে অভিযান চালাবেন। এ জন্য তারা হলসুপারদের সঙ্গে যাবার অনুরোধ করেন। এরপর তিনি দু’জন শিক্ষককে তাদের সঙ্গে পাঠান এবং পুলিশ অভিযান চালিয়ে সন্দেহভাজন তিনজনকে আটক করে নিয়ে যায়। তবে তাদের পরিচয় প্রকাশ করতে রাজি হননি অধ্যক্ষ।