ঢাকা শুক্রবার, ২৩শে আগস্ট ২০১৯, ৯ই ভাদ্র ১৪২৬

বিদিশার যুদ্ধ ঘোষণা


১৬ জুলাই ২০১৯ ১৯:৫০

আপডেট:
২৩ আগস্ট ২০১৯ ২২:২৫

সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ চলে গেছেন পৃথিবীর মায়া ছেড়ে। ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় রবিবার (১৪ জুলাই) সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে তিনি মারা যান। মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) এরশাদকে নেতাকর্মীদের দাবির মুখে নিজ বাড়ি রংপুরের পল্লীনিবাসে দাফন করা হয়েছে।

এদিকে এরশাদ ও বিদিশা দম্পত্তির একমাত্র সন্তান এরিক এরশাদকে কাছে পেতে মা বিদিশা সিদ্দিক এবার যুদ্ধ ঘোষণা করলেন। বিদিশা সিদ্দিক তার ফেসবুক আইডিতে লিখেছেন, এবার শুরু ছেলেকে উদ্ধার করার যুদ্ধ।

এরশাদ-বিদিশার চূড়ান্ত বিবাহ বিচ্ছেদ হবার পর থেকেই এরিক প্রশ্নে আইনী লড়াইয়ে অবতীর্ণ হন বিদিশা এবং এরশাদ। অবশেষে বিষয়টি উচ্চ আদালত পর্যন্ত গড়ায়। উচ্চ আদালতের নির্দেশনায় এরিককে মা এবং বাবার সান্নিধেই থাকার সিদ্ধান্ত দেয় আদালত।

আদালতের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আপোষ-রফার মাধ্যমে পালা করে মা বিদিশা এবং বাবা এরশাদের কাছেই পালা করে থাকতেন এরিক। তবে নিরাপত্তার স্বার্থে বেশির ভাগ সময়ই বাবা এরশাদের সান্নিধ্যেই ছিল এরিক।

এরশাদ মারা যাবার আগে বারিধারার প্রেসিডেন্ট পার্কেই ছিলো এরিক। এদিকে, এরশাদের মৃত্যুর পর বিদিশা সিদ্দিক ভারতের আজমীর থেকে ছুটে আসেন সাবেক স্বামীর মুখদর্শনে। কিন্তু জাপার নেতা-কর্মীদের প্রবল বাঁধার মুখে তিনি এরশাদের মরদেহ দেখতে পাননি। এমনকি একমাত্র পুত্র এরিকের সাথেও কোন প্রকার যোগাযোগ করতে পারেননি বিদিশা।

বিদিশা সিদ্দিক বলেন, আমার সন্তান আমার কাছেই নিরাপদ। এতোদিন বাবা জীবিত ছিলো তাই আমার প্রতিবন্ধী ছেলেকে বাবার কাছেই নিরাপদ মনে করেছি। এখন আমি আমার সন্তানকে একা রেখে শান্তি ও স্বস্তি পাচ্ছিনা। আমার শেষ চাওয়া আমার সন্তান আমার কাছেই থাকবে। আদালতের নির্দেশনাও আছে এমন।


নতুনসময়/এমএন