ঢাকা সোমবার, ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৯ই আশ্বিন ১৪২৬


আমরা দয়া চাচ্ছি না: ফখরুল


১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০৯:৪৭

আপডেট:
১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ১০:২৩

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে প্রায় ৮ মাস কারাগারে রাখা হয়েছে। তাকে অবশ্যই মুক্তি দিতে হবে। আমরা তার মুক্তি চাচ্ছি, এটা কোনো দয়া চাচ্ছি না ।

সোমবার (১০ সেপ্টেম্বর) দুপুরে জাতীয়  প্রেসক্লাবের  সামনে বিএনপি আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেছেন, স্বাধীনতা যুদ্ধের মধ্যে দিয়ে আমরা যা অর্জন করেছিলাম তা গত ১০ বছরে এ সরকার ধ্বংস করে দিয়েছে। গৃহপালিত বিরোধীদল নিয়ে সংসদ অকার্যরকর করে রেখেছে।

জনগণ তাদের কাছ থেকে মুক্তি চায় উল্লেখ করে তিনি বলেন, এই সরকারের দিন শেষ হয়ে এসেছে, রাজনৈতিক ভাবে তারা দেউলিয়া হয়ে গেছে। সে কারণে জনগণ ও রাজনৈতিক গুলোর মধ্যে ঐক্যের মাধ্যমে দেশকে জালিমদের হাত থেকে রক্ষা করতে হবে।

তিনি বলেন, সরকার পরিকল্পিতভাবে বিএনপিকে ধ্বংস করার জন্য একের পর এক ভৌতিক মামলা তৈরি করে নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার করছে।

এই সরকারকে পদত্যাগ দাবি করে তিনি আরো বলেন, তফসিল ঘোষণার আগে সংসদ ভেঙে দিয়ে নিরপেক্ষ সরকার গঠন করতে হবে। নির্বাচন কমিশনকে পূর্ণগঠন করে নির্বাচনের সময় সেনাবাহিনী মোতায়েন দাবি করেন।

মানববন্ধনে আরো বক্তব্য দেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, এনপিপির চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আল নোমান, বরকত উল্লাহ বুলু, সেলিমা রহমান, ডা. এজেড এম জাহিদ হোসেন, শামসুজ্জামান দুদু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, হাবিবুর রহমান হাবিব, জয়নুল আবদিন ফারুক, আব্দুস সালাম, যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক আজিজুল বারী হেলাল, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, যুবদলের সিনিয়র সহসভাপতি মোরতাজুল করিম বাদরু, শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম খান নাসিম, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের ভূইয়া জুয়েল, প্রমুখ।

এসএমএন