ঢাকা শুক্রবার, ২৩শে আগস্ট ২০১৯, ৯ই ভাদ্র ১৪২৬


যুক্তরাষ্ট্রকে জবাব দিতে প্রস্তুত ইরান


১৩ মে ২০১৯ ১৩:৪৩

আপডেট:
২৩ আগস্ট ২০১৯ ২২:২৭

ইরানকে সতর্ক করতে ইতিমধ্যেই উপসাগরীয় অঞ্চলে বিমানবাহী রণতরী, বোমারু বিমান পাঠানোর পর প্যাট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা মোতায়েন করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

পারস্য উপসাগরে এরই মধ্যে পৌঁছে গেছে মার্কিন বিমানবাহী রণতরী ইউএসএস আবরাহাম লিঙ্কন। পেন্টাগন বলেছে, এটি সুয়েজ খাল অতিক্রম করেছে। এর পেছন পেছন এখন যাচ্ছে ইউএসএস আরলিংটন। হেলিকপ্টারবাহী এই জাহাজটি সঙ্গে করে উভচর যুদ্ধযানও নিয়ে যাচ্ছে। এ ধরণের যান জলে ও স্থলে উভয় পরিবেশেই চলাচল করতে পারে।

পেন্টাগন জানিয়েছে, বি-৫২ বোমারু বিমান ইতিমধ্যে কাতারে অবস্থিত যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক ঘাটিতে পৌঁছেছে।

এসব রণ আয়োজনের কারণ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের দাবি, মার্কিন সামরিক বাহিনী ও স্বার্থ সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোর ওপর ইরানের দিক থেকে হুমকি রয়েছে। তাই তারা যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবিলায় মধ্যপ্রাচ্যে সামরিক শক্তি বাড়াচ্ছে। তবে ইরান একে ‘বাজে কথা’ হিসেবেই উড়িয়ে দিয়েছে।

অন্যদিকে ইরান বলছে, তাদেরকে ভয় দেখাতে এসব আয়োজন করছে ওয়াশিংটন। এই অবস্থায় ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি বলেছেন, এখন থেকে তার দেশ সমৃদ্ধ বাড়তি ইউরেনিয়াম সঞ্চয় করে রাখবে। শুধু তাই নয় বোমা বানানোর মতো ইউরেনিয়াম আবারো উৎপাদন করার কথা ভাবছে তার দেশ।

রুহানি আরও বলেন, যুক্তরাষ্ট্র বেশি বাড়াবাড়ি করলে তার ফল খুব একটা ভালো হবে না। তিনি জানান, তার দেশ মার্কিনীদের যে কোন হামলা ঠেকিয়ে পাল্টা জবাব দিতে প্রস্তুত রয়েছে।


নতুনসময়/এনএইচ