ঢাকা মঙ্গলবার, ১৬ই জুলাই ২০২৪, ২রা শ্রাবণ ১৪৩১


মালিকানার দাবিদার দুইজন, সমাধান করল মহিষ নিজেই


৮ জুলাই ২০২৪ ১৬:৪৯

ছবি: সংগৃহীত

মহিষের মালিক কে, তা নিয়ে সালিশ বৈঠকে মীমাংসা না হওয়ায় পুলিশের দ্বারস্থ হয়। কিন্তু কীভাবে মহিষের মালিককে খুঁজে পাওয়া যাবে, তার কূলকিনারা করতে পারছিল না পুলিশ। এরপরই এই সমস্যার সামাধান দিল মহিষ নিজেই।

 

শুনতে অবাক লাগলেও সম্প্রতি এমন ঘটনা ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশে। কয়েক দিন আগে নন্দনাল সরোজের বাড়ি থেকে তার একটি মহিষ হারিয়ে যায়। অনেক খোঁজাখুঁজি শেষে তিন দিন পর মহিষটির সন্ধান পান নন্দলাল সরোজ। পাশের হরিকেশ গ্রামের হনুমান সরোজের বাড়িতে মহিষটি বেঁধে রাখা ছিল। কিন্তু হনুমান মহিষটিকে তার দাবি করে ফেরত দিতে অস্বীকৃতি জানান। পরে উপায় না পেয়ে মহেশগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন নন্দনাল।

 

এরপর পুলিশ গত বৃহস্পতিবার উভয় দাবিদারকে থানায় ডেকে পাঠান। সঙ্গে পঞ্চায়েত প্রধানকেও। 

 

মহেশগঞ্জ থানার এসএইচও শ্রাবণ কুমার সিং তখন বিরোধ মেটানোর উপায় বের করেন। সিং বলেন, সিদ্ধান্তটি মহিষের ওপরই ছেড়ে দেওয়া উচিত।

 

মহিষটিকে রাস্তায় একা ছেড়ে দেওয়া হবে এবং যাকে অনুসরণ করবে মহিষটি, তাকেই এর মালিক বলে ঘোষণা করা হবে। গ্রামবাসীরাও সিংয়ের কথায় রাজি হয়ে যায়।

 

এরপর নন্দলাল এবং হনুমান উভয়কেই তাদের গ্রামের পথে বিপরীত দিকে দাঁড়াতে বলা হয়। পুলিশ তখন মহিষটিকে থানা থেকে ছেড়ে দেয় এবং নন্দলালকে অনুসরণ করে সোজা রায় আসকারানপুর গ্রামে তার বাড়িতে চলে যায় মহিষটি। অবশেষে সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মহিষ নন্দলালের হাতেই তুলে দেওয়া হয়। এ ঘটনার পর অন্য দাবিদারকে পুলিশ এবং গ্রামবাসী উভয়েই তিরস্কার করতে থাকে।

 

সূত্র: এনডিটিভি