ঢাকা বুধবার, ১৯শে ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৮ই ফাল্গুন ১৪২৬


করোনা ভাইরাসে চীনে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা, আতঙ্কে বিশ্ববাসী


২৬ জানুয়ারী ২০২০ ১০:৪২

আপডেট:
১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৬:২০

ছবি সংগৃহীত

চীনে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস। গত কয়েক সপ্তাহে দেশটিতে মারা গেছেন অর্ধশতাধিক। আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় দুই হাজার। এ অবস্থায় হংকংয়ে জারি করা হয়েছে জরুরি অবস্থা। উদ্বেগে আছে, বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল, যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন দেশ।

চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহর এখন যেন মৃত্যুপুরী। এ শহর থেকেই ছড়িয়েছে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস। মৃতের সংখ্যাও সবচেয়ে বেশি এখানেই।

উহানের হাসপাতালগুলোতে সেবা দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে চিকিৎসকদের। তাদের সহায়তায় এগিয়ে এসেছেন সামরিক বাহিনীর সদস্যরা। আরও উন্নত সেবা নিশ্চিত করতে এক সপ্তাহের মধ্যে হাসপাতাল নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

ইতোমধ্যে রাজধানী বেইজিংসহ চীনের ২৯টি প্রদেশে ছড়িয়ে পড়েছে ভাইরাসটি। শনিবার এক জরুরি বৈঠকে করোনা ভারইরাস নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। আক্ষেপ নিয়ে তিনি বলেন, কোনোভাবেই ভাইরাসটির লাগাম টানা যাচ্ছে না। ভাইরাসের কারণে এরই মধ্যে ব্যবসায়িক ক্ষতির মুখে পড়েছে বেইজিং।

চীনের মতো হংকংয়েও দিন দিন বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা।

হংকং প্রধান নির্বাহী ক্যামি লাম বলেন, পরিস্থিতি বেগতিক হওয়ায় হংকংয়ে জারি করা হয়েছে জরুরি অবস্থা। বন্ধ করে দেয়া হয়েছে সব স্কুল-কলেজ। আমরা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে দিতে চাই না। এ জন্য যা কিছু করা লাগে আমরা করব।

ভারতে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগীর সন্ধান মেলায় জারি করা হয়েছে হাই এলার্ট। এছাড়া নেপালেও ছড়িয়ে পড়েছে জটিল এ রোগ।

একজন বলেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সচেতন রয়েছে। আক্রান্তদের আলাদা করে সেবা দেয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, থাইল্যান্ড, সিঙ্গাপুর, ভিয়েতনাম, তাইওয়ান, মালয়েশিয়া, অস্ট্রেলিয়া, সৌদি আরব, যুক্তরাষ্ট্র ও ফ্রান্সসহ আরও কয়েকটি দেশে ছড়িয়েছে ভাইরাসটি। এতে উদ্বেগ বেড়েছে দেশগুলোর বাসিন্দাদের মধ্যে। বিমানবন্দরগুলোতে স্বাস্থ্য পরীক্ষা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। তাছাড়া চীন ভ্রমণে জারি রয়েছে সতর্কতা।