ঢাকা সোমবার, ১৭ই জুন ২০১৯, ৪ঠা আষাঢ় ১৪২৬


রূপগঞ্জে লাইফ এইড হাসপাতালে ফ্রি চিকিৎসা সেবা পাবেন


২২ মে ২০১৯ ১৯:৩৫

আপডেট:
১৭ জুন ২০১৯ ২৩:৩৪

নতুনসময় ছবি

ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন (ইউ) এর মাধ্যমে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের লাইভ এইড হাসপাতালে ৩৫ হাজার দুস্থ্য ও গরিব রোগীকে ফ্রি চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হবে।

রিসোর্ট ইন্টিগ্রেশন সেন্টার (রিক) এর সহযোগীতায় এনহানসিং হেলথ এন্ড নিউট্রিশন সার্ভিসেস ফর দি আরবান পুওর পিলি অব সিলেক্ট মিউনিসিপালিটিস অব বাংলাদেশ (ই.এইচ.এন.এস.এম) প্রজেক্টের আওতায় এ চিকিৎসাসেবা বাস্তবায়ন করা হবে।

বুধবার বিকেলে উপজেলার বরপা এলাকায় লাইফ এইড হাসপাতালে এ প্রকল্পের উদ্বোধন করেন পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতীক)। প্রথমদিনে এ প্রকল্পের আওতায় তারাবো পৌরসভার ৫’শ জন দুস্থ্য ও গরিব মানুষকে স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রমের হেলথ কার্ড বিতরণ করা হয়।

তারাবো পৌরসভার মেয়র মিসেস হাসিনা গাজীর সভাপতিত্বে ও রূপগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি, কলামিষ্ট, গবেষক লায়ন মীর আব্দুল আলীমের সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন, রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শাহজাহান ভুঁইয়া, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মমতাজ বেগম, মারুফ-শারমীন স্মৃতি সংস্থার সভাপতি লায়ন আলহাজ্ব মোহাম্মদ মোজাম্মেল হক ভুঁইয়া, উপজেলা স¦াস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা সাইদ আল মামুন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শাহরিয়ার পান্না সোহেল, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সৈয়দা ফেরদৌসী আলম নীলা, প্রকল্প স্বমন্বয়কারী নাসির উদ্দিন সিকদার, তারাবো পৌরসভা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান মোল্লা, আওয়ামী লীগ নেতা রমজান হোসেন সাউদ, তারাবো পৌরসভার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম, তারাবো পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী জেড এম আনোয়ার, তারাবো পৌরসভার সচিব তাজুল ইসলাম, লাইফ এইড হসপিটালের চেয়ারম্যান নাসরিন সুলতানা, লাইফ এইড হসপিটালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডাক্তার তানজীল এহসান অভি, লাইফ এইড হসপিটালের পরিচালক ডাক্তার আফরুননেসা মুনাসহ প্রমূখ।

বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতীক) বলেছেন, “বিএনপি-জামায়াত জোট ২০০১ সালে ক্ষমতায় এসে সব কমিউনিটি ক্লিনিক বন্ধ করে দিয়েছিল, যেগুলো দেশের জনসাধারণকে চমৎকার সেবা দিয়ে আসছিল। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় এসে দেশের সাধারন মানুষের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দিয়েছে। দেশে ১২ হাজারের বেশি কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপন করেছে। কমিউনিটি ক্লিনিক থেকে স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে ৩২ প্রকারের ঔষধ বিনামূল্যে দেয়া হচ্ছে, যা এসডিজির অভীষ্ট লক্ষ্য অর্জনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।”

নতুনসময়/আল-এম,