ঢাকা বুধবার, ১৯শে ডিসেম্বর ২০১৮, ৬ই পৌষ ১৪২৫


এ কেমন ক্রিকেট খেলল মিয়ানমার!


১০ অক্টোবর ২০১৮ ১৯:১০

আপডেট:
১৯ ডিসেম্বর ২০১৮ ২০:৪৬

কুয়ালালামপুরে এশিয়ান অঞ্চলের আইসিসি ওয়ার্ল্ড টি-টোয়েন্টি বাছাইপর্বে অবিশ্বাস্য এক স্কোরবোর্ডের জন্ম দিয়েছে মালয়েশিয়া-মিয়ানমার ম্যাচ। এভাবেও ব্যাটিং ধস নামে! বৃষ্টি হানা দেয়ার আগে ১০.১ ওভার খেলে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামা মিয়ানমার। এর মধ্যে ৮ উইকেটের পতন ঘটে। আর রান? উইকেটসংখ্যার চেয়ে এক বেশি! ৯ রান! মিয়ানমারের ৬ ব্যাটসম্যান ফেরেন শূন্য রানে। সর্বোচ্চ ৩ রান করে অপরাজিত থাকেন কো আং। লেগ বাই থেকে আসে আরও ৩ রান। বাউন্ডারি নেই একটিও। ম্যাচে সর্বোচ্চ স্কোরিং শট-সিঙ্গেল।

মালয়েশিয়ার বাঁহাতি স্পিনার পভনদ্বীপ সিং ১ রানের বিনিময়ে ৫ উইকেট নেন। তার ৪ ওভারের তিনটিই মেডেন। বৃষ্টির কারণে মালয়েশিয়ার জয়ের জন্য লক্ষ্য দাঁড়ায় ৮ ওভারে ৬ রান। মামুলি লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে মালয়েশিয়ার শুরুটাও ছিল মিয়ানমারের মতো। দলীয় ১ রানের মধ্যে আউট হন দুই ওপেনার। সেটিও মিয়ানমার পেসার পেইং দানুর করা প্রথম ওভরে। পরে সুহান আলাগারত্মমের ছক্কায় ৮ উইকেটে জয় কুড়ায় মালয়েশিয়া।

মজার ব্যাপার, বৃষ্টির কারণে ম্যাচ পণ্ডো হওয়ার শঙ্কা ছিল। আর ম্যাচ পুনরায় শুরু করতে মালয়েশিয়ার খেলোয়াড়রা নিজেরাই মাঠে নেমে পানি নিষ্কাশন করেন। যা বাংলাদেশের ১৯৯৭ আইসিসি ট্রফির স্মৃতি ফিরিয়ে আনে। সেবার দ্বিতীয় রাউন্ডে হল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচটা বৃষ্টির কারণে পণ্ডো হলে ১৯৯৯ বিশ্বকাপে খেলা হতো না বাংলাদেশের। তাই বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়দের পাশাপাশি সমর্থকরা মাঠে নেমে পানি নিষ্কাশন করে পুনরায় ম্যাচ শুরুর ব্যবস্থা করেন। আর জয়ের হাসি নিয়ে মাঠ ছাড়ে টাইগাররা।

এসএ