ঢাকা বুধবার, ১৯শে ডিসেম্বর ২০১৮, ৬ই পৌষ ১৪২৫


‘রেগে গিয়ে ফখরুলকে বললেন, আপনাদের আসলে রাস্তায় পেটানোই উচিত’


২৭ নভেম্বর ২০১৮ ১৬:০৫

আপডেট:
২৭ নভেম্বর ২০১৮ ২০:৩৫

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সঙ্গে কথার কাটাকাটি হয়েছে গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টুর। ড. কামাল ও ফখরুলের মধ্যকার বৈঠকে প্রচণ্ড ক্ষেপে গিয়ে মহসীন মন্টু বলেছেন, ‘আপনাদের আসলে রাস্তায় পেটানোই উচিত। আওয়ামী লীগ যে গত ১০ বছর ধরে আপনাদের রাস্তায় ধরে পিটিয়েছে, এটা ঠিকই করেছে। কারণ একটু সুযোগ পেলে আপনারা কি করেন, আজ সেটা দেখলাম।’

জানা গেছে, মঙ্গলবার (২৭ নভেম্বর) সকালে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সঙ্গে কামাল হোসেনের আসন ভাগাভাগি নিয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এই বৈঠকে বিএনপি গণফোরামকে ১০টি আসন দেওয়ার প্রস্তাব করে। প্রস্তাব শুনে ক্ষেপে গিয়ে ড. কামাল হোসেনের আগেই মির্জা ফখরুলকে এ রকম উত্তেজিত কিছু শুনিয়ে দিলেন মোস্তফা মহসীন মন্টু।

মোস্তফা মহসীন মন্টুর ঢাকা-২ ও ৩ থেকে নির্বাচন করতে চেয়েছিলেন, কিন্তু তার দাবি নাকচ করে দিয়ে তাকে ধানমন্ডি অথবা মোহাম্মদপুরের একটি আসন থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার প্রস্তাব দেওয়া হয়। এই প্রস্তাবে মোস্তফা মহসীন মন্টু ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন।

এবার বিএনপিকে ছোট করে তিনি বলেন, ‘ড. কামাল হলেন বিএনপি’র দ্বিতীয় জন্মদাতা। আপনারা রাস্তায় দাঁড়াতে পারতেন না। এতদিনে জেলে যেতেন। ড. কামাল হোসেনের ছায়ায় আছেন বলেই সরকার আপনাদের এখনো কিছু করছে না। অথচ আজ আপনারা ড. কামালের সঙ্গেই বেইমানি করছেন। বিএনপির চরিত্র আসলে বদল হবে না।’

এ পর্যায়ে ড. কামাল হোসেন মোস্তফা মহসীন মন্টুকে থামিয়ে দেন এবং তাকে শান্ত হতে বলেন। মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরও কিছুটা উত্তেজিত হন। তিনি বলেন যে, আমরা কারও দয়ায় রাজনীতি করি না। বিএনপি জনপ্রিয় দল। নির্বাচন আর আবেগ এক জিনিস না। আমরা কামাল হোসেনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই বলে এই না যে, আমরা দল বিক্রি করে সব আসন ছেড়ে দিয়ে গণফোরামের পেছনে থাকবো। এটা রাজনীতি হতে পারে না।

পরে ড. কামাল হোসেন একটা দায়সারা মধ্যস্থতা করেন বলে জানা যায়। তিনি বলেন যে, ঠিক আছে, যে যার মতো করে তৈরি হোক। পরবর্তীতে এ নিয়ে আলোচনা হবে।

এমএ